এখনো উপার্জন করতে পারি না,তবুও দুজনকেই বিয়ে করেছি

এখনো উপার্জন করতে পারি না,তবুও দুজনকেই বিয়ে করেছিঃ

১৩ এপ্রিল মমতা-রনির বিয়ের আয়োজন করা হয়। আর এ খবর শুনে রনির বাড়িতে অনশন শুরু করেন আগের স্ত্রী ইতি। এরপর তিন পরিবারের উপস্থিতিতে ২০ এপ্রিল রাতে পারিবারিকভাবে এক বরের সঙ্গে দুই প্রেমিকার বিয়ে দেওয়া হয়।

জানা গেছে, ইতির সঙ্গে রনির দীর্ঘদিনের প্রেম ছিল। মন্দিরে গিয়ে তারা বিয়েও করেন। তবে বিষয়টি গোপন রেখেছিলেন দুজনই। এর মধ্যেই মমতার সঙ্গে প্রেম হয় রনির। মাঝে মধ্যেই প্রেমিকার সঙ্গে দেখা করতে যেতেন। হঠাৎ এক রাতে মমতার সঙ্গে দেখা করতে গিয়ে হাতেনাতে ধরা পড়েন। এরপর ফেঁসে যান রনি।

তবে তাদের আনন্দে এক ধরনের বাধা হয়ে দাঁড়িয়েছে রনির বেকারত্ব। তাই চাকরি জন্য সবার সহায়তা চেয়েছেন এ প্রেমিক পুরুষ।
রনির বাড়ি পঞ্চগড়ের লক্ষীদ্বার এলাকায়। তিনি যামিনী চন্দ্র বর্মনের ছেলে। তার প্রথম স্ত্রী ২০ বছরের ইতি রানী একই ইউনিয়নের গাঠিয়াপাড়া এলাকার গিরিশ চন্দ্রের মেয়ে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.