চাকরি পেতে সবার সহযোগিতা চান দুই প্রেমিকাকে বিয়ে করা রনি

একসঙ্গে মমতা রানী (১৮) ও ইতি রানী (২০) নামে দুই প্রেমিকাকে বিয়ে করে কিছুটা বিপাকে পড়েছেন পঞ্চগড়ের রোহিনী চন্দ্র বর্মন রনি (২৫) নামে এক যুবক। সম্প্রতি তাদের এ বিয়ের খবর দেশব্যাপী ব্যাপক সাড়া ফেলেছে। তার বিয়ের খবর এখন টক অফ দ্যা কান্টিতে পরিণত হয়েছে। বিয়ে করলেও নিজের উপার্জন নিয়ে দুশ্চিন্তায় রয়েছেন রোহিনী চন্দ্র বর্মন।

পঞ্চগড়ের আটোয়ারী উপজেলার বলরামপুর ইউনিয়নের লক্ষ্মীদার এলাকার যামিনী চন্দ্র রায়ের ছেলে রনি। প্রথম স্ত্রী ইতি রানী একই ইউনিয়নের গাঠিয়াপাড়া এলাকার গিরিশ চন্দ্রের মেয়ে। দ্বিতীয় স্ত্রী মমতা রানী লক্ষীদ্বার গ্রামের টোনোকিসর রায়ের মেয়ে। পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট থেকে মেকানিক্যাল ট্রেডে ডিপ্লোমা করেছেন রনি।

এক ভাই এক বোনসহ চারজনের সংসারে যোগ হয়েছে আরো দুই নতুন মুখ। রনি গণমাধ্যমকে জানান, তারা দুজনই তাকে ভালোবাসেন। তাই দুইজনকেই বিয়ে করেছেন তিনি। এই বিয়েতে তিনি এবং তার পরিবার খুশি। তিনি বলেন, ‘‘তবে চিন্তার বিষয়, আমি এখনো উপার্জন করতে পারি না। এখন চাকরি খুঁজতে হবে। আমি সবার সহযোগিতা চাচ্ছি।’’

ইতির সঙ্গে রনির প্রেমের সম্পর্ক দীর্ঘদিনের। প্রেম চলাকালীন এক পর্যায়ে তারা গোপনে মন্দিরে গিয়ে বিয়ে করেন। বিয়ের বিষয়টি গোপন রেখেছিলেন দুইজনই। গোপন বিয়ের কিছুদিনের মধ্যে নতুন করে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে মমতার সঙ্গে। প্রেমের সূত্রে মমতার সঙ্গে রাতে দেখা করতে গিয়ে স্থানীয়দের কাছে ধরা পড়ে যান রনি।

এরপর গত ১৩ এপ্রিল মমতা ও রনির বিয়ের আয়োজনের খবর পেয়ে আগের স্ত্রী ইতি রনির বাড়িতে অনশন শুরু করেন। পরে বুধবার (২০ এপ্রিল) রাতে তিন পরিবারের উপস্থিতিতে ঘটা করে পারিবারিকভাবে এক বরের সঙ্গে দুই প্রেমিকার বিয়ে দেন।

রনির বাবা যামিনী চন্দ্র বর্মন বলেন, আমরা তিন পরিবার মিলে তাদের বিয়ে দিয়েছি। আমি আমার দুই বৌমাকে মেনে নিয়েছি। আমার ছেলের কোনো চাকরি না থাকায় এবং বেকার থাকায় একটু সবাই সহযোগিতা করেন। আমার ছেলে যেন একটা চাকরি বা কিছু করতে পারে। তাদের জন্য সবাই দোয়া ও আশীর্বাদ করবেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.